1. admin@manirampurkantho.com : admin :
শিরোনাম :
মণিরামপুরে মাদ্রাসার সুপার ও সভাপতির বিরুদ্ধে ভূয়া নিয়োগসহ অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন “শুভ মহালয়া”- সবাইকে আগমনীর আনন্দ বার্তা ও শুভেচ্ছা অতিরিক্ত ভর্তি ফি আদায়ের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উত্তাল মণিরামপুর সরকারী কলেজ ক্যাম্পাস মণিরামপুর সরকারি কলেজে অতিরিক্ত ভর্তি ফি আদায়ের অভিযোগ মণিরামপুরে জমি দখলকে কেন্দ্র করে যুবলীগ নেতার নেতৃত্বে প্রতিপক্ষের উপর হামলা হামলায় নারী-পুরুষসহ আহত ১০, দেশী অস্ত্র ও গাজা উদ্ধার মণিরামপুরে কৃষকদলের উদ্যোগে বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ৭১’র পরাজিত শত্রুদের সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিতে ছাত্রলীগকে মুখ্য ভুমিকা পালন করতে হবে -প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য মণিরামপুরে ৫ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির স্মারকলিপি প্রদান ভূয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভয়নগর দাপিয়ে মনিরামপুরে আটক বাইক চালিয়ে গায়ে হলুদ ও বিয়ের অনুষ্ঠানে কনে

ছাত্রনেতা থেকে গণমানুষের নেতা মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৮
  • ২০৭ Time View

প্রবীর কুন্ডু, মণিরামপুর:

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ আর জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অবিচল থেকে ১৯৮২ সালের ২৪ মার্চ তৎকালীন সামরিক শাসক ঘরোয়া রাজনীতি সুযোগ দিলে সেই দুঃসময়ের যে কয়জন ছাত্র নেতৃত্ব যশোরের রাজপথে স্বোচ্চার ছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী। তৃর্ণমূল থেকে উঠে আসা মণিরামপুরের এই কৃতি সন্তান দীর্ঘ ৩৫ বছর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক অঙ্গনে সাহসী নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের যশোর জেলার সাধারণ সম্পাদক থেকে সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণের মাধ্যমে দীর্ঘ রাজনীতির পথচলায় ছাত্র নেতা থেকে জননেতা যশোর জেলা যুবলীগের সভাপতি মোস্তফা ফরিদ আহেম্মদ চৌধুরী।

দীর্ঘ ৩৫ বছরের রাজনীতির প্রিয়মুখ মোস্তফা ফরিদ আহেম্মদ চৌধুরী। ১৯৮৬ তে ঐহিত্যবাহী বিদ্যাপীঠ এম,এম কলেজ ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দায়িত্ব পেয়ে পরবর্তীতে ১৯৮৮ তে যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, ১৯৯০ তে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। ১৯৯৫ তে যশোর জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। এবং ২০০৩ থেকে অদ্যবধি দেশের প্রচীনতম যশোর জেলা যুবলীগের সভাপতি দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী ৯০’র স্বৈরাচার এরশাদ সরকার পতন আন্দোলনে সর্বদলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ, ৯৬’র স্বৈরাচারীনি খালেদা সরকার পতনের আন্দোলনে যশোরের রাজপথে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে জাতীয় নির্বাচনে দৃঢ়ভূমিকা রেখে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে সাহসী নেতৃত্ব দেওয়ার কারণে রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রিয় মুখ হয়ে উঠেন। আর এর জন্য তাকে সহ্য করতে হয়েছে হামলা-মামলা নির্যাতনসহ জেল জুলুম। আজও তিনি তাঁর নীতি আদর্শ থেকে বিচ্যুত হননি, করেননি দলের বিরুদ্ধাচারণ। দলীয় অনুগত হয়ে রয়েছেন সারাটি জীবন।

রাজনীতির পাশাপাশি যশোর আমিনিয়া কামিল মাদ্রাসার ২০১০ থেকে অদ্যবধি গভার্নিং বডির সভাপতির পদে দায়িত্ব থেকে শিক্ষাঙ্গনে ভুমিকা রেখে চলেছেন। এছাড়াও যশোর ইন্সটিটিউটের আজীন সদস্য ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সদস্যসহ বিভিন্ন সেবামূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সম্পৃক্ত রয়েছেন।

মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মণিরামপুর উপজেলার মানুষের পাশে থেকে সর্বদা কাজ করে চলেছেন। জেলার নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি তিনি মণিরামপুরে রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ডে তাঁর সরব উপস্থিতিতে উপজেলাবাসীর হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন।

মোস্তফা ফরিদ আহম্মেদ চৌধুরী রাজনীতিতে সৎ, যোগ্য, লবিং-গ্র“পিং ছাড়া দলের ক্লিন ইমেজের মানুষ হওয়ায় মণিরামপুর আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায় নেতাকর্মীর সুসম্পর্ক থাকায় উপজেলাবাসী তাঁকে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যোগ্য প্রার্থী হিসেবে কাছে পেতে চায়।

ইতিমধ্যে তিনি উপজেলার ছোট-বড় সকল হাট-বাজার, ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে সাধারণ মানুষের দোর গোড়ায় বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরে সভা-সমাবেশ, গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক করে নৌকা প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করে চলেছেন। ধারাবাহিক গণসংযোগে তিনি আধুনিক ও মডেল উপজেলা গড়তে মাদক, সন্ত্রাস মুক্ত, যুগোপযোগী শিক্ষাঙ্গনসহ সকল ক্ষেত্রে সরকারের উন্নয়ন অব্যাহত রাখবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন।


Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category


© All rights reserved © 2020 www.manirampurkantho.com
Site Customized By NewsTech.Com