1. admin@manirampurkantho.com : admin :
শিরোনাম :
মণিরামপুরে মাদ্রাসার সুপার ও সভাপতির বিরুদ্ধে ভূয়া নিয়োগসহ অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন “শুভ মহালয়া”- সবাইকে আগমনীর আনন্দ বার্তা ও শুভেচ্ছা অতিরিক্ত ভর্তি ফি আদায়ের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উত্তাল মণিরামপুর সরকারী কলেজ ক্যাম্পাস মণিরামপুর সরকারি কলেজে অতিরিক্ত ভর্তি ফি আদায়ের অভিযোগ মণিরামপুরে জমি দখলকে কেন্দ্র করে যুবলীগ নেতার নেতৃত্বে প্রতিপক্ষের উপর হামলা হামলায় নারী-পুরুষসহ আহত ১০, দেশী অস্ত্র ও গাজা উদ্ধার মণিরামপুরে কৃষকদলের উদ্যোগে বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ৭১’র পরাজিত শত্রুদের সকল ষড়যন্ত্র রুখে দিতে ছাত্রলীগকে মুখ্য ভুমিকা পালন করতে হবে -প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য মণিরামপুরে ৫ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির স্মারকলিপি প্রদান ভূয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভয়নগর দাপিয়ে মনিরামপুরে আটক বাইক চালিয়ে গায়ে হলুদ ও বিয়ের অনুষ্ঠানে কনে

‘জেলে পাঠালে খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তা বাড়বে’

  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮
  • ১৯৩ Time View

‘জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট একটি রাজনৈতিক মামলা। আর এ মামলায় খালেদা জিয়াকে জেলে পাঠালে তার জনপ্রিয়তা কমবে না বরং বাড়বে। আর তিনিই হবেন দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী।’

মঙ্গলবার পুরান ঢাকার বকশিবাজারস্থ কারা অধিদপ্তরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামানের আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে দশম দিনের মতো যুক্তিতর্ক উপস্থাপনে এসব কথা বলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ।

তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের অধীনে মামলাটি করা হয়েছে। তবে এই মামলার প্রক্রিয়া, অনুসন্ধান ও তদন্তকাজে দুর্নীতি দমন কমিশনের আইন যথাযথভাবে অনুসরণ করা হয়নি। তাই এ মামলা চলারই কথা না। এই মামলা প্রথম দিনেই খারিজ হওয়া উচিত ছিল। তা যে এখন পর্যন্ত চলছে এটায় অস্বাভাবিক।

মওদুদ আহমদ বলেন, ১৮ বছর পরে নথি বের করা হয়েছে। প্রসিকিউশন নিজে তা স্বীকার করেছে এটি আসল নথি নয়। এটি ঘষামাজা ওভার রাইটিং করা নথি। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে যারা মিথ্যা সাক্ষ্য দিয়েছেন, আইনানুসারে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন করেছেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী। আইনানুসারে আপনি (বিচারক) তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এই সব বিবেচনায় আপনি (বিচারক) খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত খালাস দেবেন।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল ১১টা ৩৭ মিনিটে দুই মামলার হাজিরা দিতে আদালতে উপস্থিত হন। ১১টা ৪৩ মিনিটে আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়। মওদুদ আহমদ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু করে সোয়া ১টায় তা শেষ করেন।

এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাটি দায়ের করে দুদক। ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় এই মামলাটি দায়ের করা হয়। ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট দুদক আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।


Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category


© All rights reserved © 2020 www.manirampurkantho.com
Site Customized By NewsTech.Com